1. admin@narsingdirkanthosor.com : admin :
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:২৭ অপরাহ্ন

রায়পুরায় র‌্যাবের ওপর হামলা করে আসামি ছিনতাই, মামলার আসামি ৪০০

এম আজিজুল ইসলাম | নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিতঃ রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ২৮১ বার

এম আজিজুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক : নরসিংদীর রায়পুরায় মাদক বিরোধী অভিযানের সময় র‌্যাবের ওপর হামলা চালিয়ে ইমরান হোসেন (৩৫) নামে র‍্যাবের এক সদস্যকে কুপিয়ে আহত করে আসামী ছিনতাইয়ের ঘটনা ও মাদকের ঘটনায় ৪০০ জনের বিরুদ্ধে রায়পুরা থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) বিকাল ৩টা পর্যন্ত উক্ত ঘটনায় কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি বলে জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মাহমুদুল হাসান। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারী) র‌্যাব-১ এর পুলিশ পরিদর্শক (শহর ও যান) এফএম ইমতিয়াজ আলী বাদি হয়ে ১৪জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত আরো ৩শ/৪শ কে আসামী করে মামলা দায়ের করেন বলে জানান তিনি।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টায় রায়পুরা উপজেলার নিলক্ষা ইউনিয়নের সোনাকান্দি গ্রামে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে রাজধানী ঢাকার উত্তরার র‌্যাব-১ এর একটি অভিযানিক দল। অভিযান চলাকালীন সময়ে ইউনুস আলী (৪০) নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ইউনুস আলীকে নিয়ে আসার সময় তার সহযোগীরা র‌্যাব জেনেও ডাকাত বলে চিৎকার দিলে অজ্ঞাতনামা ৩০০/৪০০ জন লোক আগ্নেয়াস্ত্র, দেশীয় অস্ত্র, ধারালো অস্ত্র, ককটেল, কাঠ ও বাঁশের লাঠিসোঠা এবং ইট পাটকেল নিয়ে র‌্যাবের ওপর হামলা করে গ্রেফতারকৃত আসামী ইউনুস আলীকে ছিনিয়ে নেয়।

এসময় তাদের প্রতিহত করার চেষ্টার করলে হামলাকারীদের মধ্যে একজন র‌্যাব-১ এর কনস্টেবল ইমরান হাসান (৩৫)কে হত্যার উদ্দেশ্যে গুলি করে। এসময় তার ডান হাতের তিনটি আঙ্গুলে গুলিবিদ্ধ হয়ে অধিকাংশ অংশ স্থায়ীভাবে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এসময় র‌্যাবের আরোও ৩ সদস্য গুরুতর আহত হয়। আহত কনস্টেবল ইমরান হোসেনকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পরে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

পরে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা ঘটনার ভয়াবহতা সম্পর্কে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ, র‌্যাব-১১ ও রায়পুরা থানায় অবগত করলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় সাপোর্টিং টহলসহ র‌্যাবের অভিযানিক দলের অবরুদ্ধ বাকি সদস্যদের উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে কথা হয় মামলার বাদী র‌্যাব-১ এর পুলিশ পরিদর্শক (শহর ও যান) এফএম ইমতিয়াজ আলীর সাথে। ঘটনা সম্পর্কে সবশেষ বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি প্রথমে অপরাগতা প্রকাশ করেন এবং পরে সিনিয়র অফিসারদের সাথে কথা বলার পরামর্শ দেন।

রায়পুরা থানার অফিসার ইনচার্জ সাফায়েত হোসেন পলাশ মুঠোফোনে বলেন, এখন পর্যন্ত কোন আসামী গ্রেফতার হয়নি। তবে অভিযান চলমান রয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

আরো খবর..
© নরসিংদীর কন্ঠস্বর
Developed By Bongshai IT