1. admin@narsingdirkanthosor.com : admin :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

মনোহরদীতে রেডক্রিসেন্টের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারণার ফাঁদ

মনোহরদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি :
  • প্রকাশিতঃ শনিবার, ৪ মার্চ, ২০২৩
  • ১৯০ বার

মনোহরদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি : নরসিংদীর মনোহরদীতে রেডক্রিসেন্টের অর্থ ও পণ্য সহায়তার কার্ড করে দেয়ার নামে টাকা চেয়ে বিভিন্ন ইউপি সদস্যদের প্রতারনার ফাঁদে ফেলতে চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতোমধ্যেই কেউ কেউ এ ফাঁদে পড়ে টাকা খুইয়েছেন বলেও জানা যায়। কয়েক ইউপি চেয়ারম্যান ও এক আওয়ামী লীগ নেতা অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গত কয়েকদিন ধরে মনোহরদীর বিভিন্ন ইউপি মেম্বার কে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি কিছু দরিদ্র পরিবারকে নগদ অর্থ ও নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য সাহায্য করা হবে এবং এ জন্য কার্ড করে দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ মিলেছে।

উপজেলার লেবুতলা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য ফজলুর রহমান জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে একটি ফোন নম্বর (০১৭) থেকে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি নরসিংদী ইউনিট অফিসের এক কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে তার সাথে কথা বলেন এক ব্যক্তি। এতে নিজেকে সোসাইটির কর্মকর্তা মামুনুর রশীদ পরিচয় দিয়ে বলা হয়। তার ওয়ার্ডের কিছু দরিদ্র পরিবারকে রেড ক্রিসেন্টের একটি কার্ড করে হবে।

এর প্রতিটি কার্ড রেজিষ্ট্রেশন বাবদ ৭৭০ টাকা করে জমা দিতে বলা হয়। এসব কার্ডধারীদের এককালীন নগদ ৪২শ’ টাকা, ৩০ কেজি চাল, ৫ লিটার তেল, ৫ কেজি ডাল ও ৫ কেজি চিনি দেয়া হবে বলে জানানো হয়।

ইউপি সদস্য ফজলুর রহমান জানান, সে সময় আলী আকবর নামে একজন ‘বড়ো স্যার’ পরিচয়ে অপর এক ব্যক্তিও একই বিষয়ে তার সাথে কথা বলেছেন। তিনি জানান, লেবুতলা ইউপির আরো একাধিক সদস্যকেও একই বিষয়ে ফোন দেয়া হয়েছে। তবে তারা কেউ বিষয়টি বিশ্বাস করেননি এবং টাকাও দেননি।

লেবুতলা ইউপির একজন মহিলা সদস্য এ চক্রটিকে বিকাশে ১৬ হাজার ১শ’ ৭০ টাকা পাঠিয়ে প্রতারিত হয়েছেন বলে ও জানা গেছে। একই ধরনের প্রতারণার চেষ্টা হয়েছে উপজেলার চালাকচর, বড়চাপা ইউনিয়ন পরিষদের বেশ কজন সদস্যদের সাথে। তাদের কেউ এ চক্রটির প্রতারনার ফাঁদে পা দেননি বলে জানিয়েছেন চালাকচর ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল মান্নান ও বড়চাপা ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান উদ্দীন।

এ বিষয়ে মনোহরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াশীষ রায় জানান, চক্রটি থেকে সম্প্রতি টেলিফোনে তার সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছে। একই সুযোগ সুবিধার কথা বলে ১৩০ জন লোক দিতে তাকেও বলা হয়। সেই সাথে সব ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককেও বিষয়টি অবহিত করে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে বলে চক্রটি।

তিনি জানান, বিষয়টি তিনি প্রতারণা বলে অনুমান করেছেন। ফলে নিজেও কোন লোক দেননি এবং কোন ইউনিয়নকেই জানাবারও প্রয়োজন বোধ করেননি তিনি।

এ ব্যাপারে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নরসিংদী ইউনিটের সেক্রেটারী হাজী আব্দুস সাত্তার জানান,
এ সব নিঃসন্দেহে প্রতারক চক্রের কাজ। রেড ক্রিসেন্ট আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে এ রকম কোন কর্মকান্ডে জড়িত নয়। তিনি কৌশলে এ প্রতারক চক্রটিকে আটকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে তুলে দিতে ভুক্তভোগীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

আরো খবর..
© নরসিংদীর কন্ঠস্বর
Developed By Bongshai IT