1. admin@narsingdirkanthosor.com : admin :
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:১৩ অপরাহ্ন

নরসিংদীর সড়কে নিহত ৫ জনের বাড়িতে শোকের মাতম

এম আজিজুল ইসলাম | নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, ২০২২
  • ৪২০ বার

এম.আজিজুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক : নরসিংদীর রায়পুরায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সকালের ফুটপাতে সবজি বাজারে ঘটনাস্থলেই দুইজনের মৃত্যু হয় পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরো ৩ জনের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে এ দূর্ঘটনায় মোট ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

এতে নিহতদের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। এছাড়াও এঘটনায় আরোও অন্তত ৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নিহতরা সকলেই সবজি বিক্রেতা ছিলেন বলে জানান স্থানীয়রা।

আজ বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ভোর আনুমানিক সাড়ে পাঁচটায় রায়পুরা উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাহমুদাবাদ মেশিনঘর নামক এলাকায় রাস্তার পাশে ফুটপাতের বাজারে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতরা হলেন রায়পুরা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে ফারুক হোসেন (৫০), মাহমুদাবাদ মিস্ত্রিবাড়ির সায়েদ মিস্ত্রির ছেলে মাসাকিন (৪০), মাহমুদাবাদ টানপাড়া এলাকার সেন্টু মিয়ার ছেলে মো রিপন মিয়া (৩০) ও মাহমুদাবাদ এলাকার পাগলা বাড়ির বাচ্চু মিয়ার ছেলে শাহজাহান মিয়া (৫০), মাহমুদাবাদ সরদার বাড়ির জনব আলীর ছেলে বাচ্চু মিয়া (৬৫)।

খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার কওে ভৈরব ও নরসিংদীসহ আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। আহতদের নাম পরিচয় তাৎক্ষনিকভাবে জানা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জনা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে সকালে একটি অস্থায়ী সবজির হাট জমে। আজ ভোরে ভৈরব থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী জননী কুরিয়ার সার্ভিসের একটি কাভার্ডভ্যান মাহমুদাবাদ মেশিনঘর এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আশা আরেকটি কাভার্ডভ্যান ক্রস করার সময় ২টি কাভার্ডভ্যানই নিয়ন্ত্রন হারিয়ে যায়। এরমধ্যে একটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মহাসড়কের পাশে মাহমুদাবাদ মেশিন গড় এলাকায় রাস্তার পাশে জমে থাকা সবজির হাটে ঢুকে পড়ে। ফলে সেখানে থাকা ৪ জন নিহত হয়।

এব্যাপারে ভৈরব বাজার ফায়ারসার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আজিজুল হক বলেন, দুইটি কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিকে চলে যায়। আমরা ভোর আনুমানিক সাড়ে পাঁচটায় খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসে উদ্ধার কাজ শুরু করি।

আরো খবর..
© নরসিংদীর কন্ঠস্বর
Developed By Bongshai IT