1. admin@narsingdirkanthosor.com : admin :
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৮:২৭ অপরাহ্ন

কালীগঞ্জে যুবকের খন্ডিত লা’শের ৭ টুকরো উদ্ধার

মোঃ মুক্তাদির হোসেন | কালীগঞ্জ প্রতিনিধি :
  • প্রকাশিতঃ রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০২২
  • ১৯৪ বার

মোঃ মুক্তাদির হোসেন, কালীগঞ্জ প্রতিনিধি : গাজীপুরের কালীগঞ্জে নিখোঁজের তিন দিন পর সবুজ ঘোষাল (৩১) নামে এক যুবকের খন্ডিত লাশের সাত টুকরো উদ্ধার করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। নিহত সবুজ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের ভাসানিয়া গ্রামের অমূল্য ঘোষালের পুত্র। সে পার্শ্ববর্তী পানজোড়া গ্রামের পূর্বাচল এ্যাপারেলস্‌ লিঃ একিউ.সি পদে চাকুরী করতো।

স্থানীয়রা জানায়, শনিবার সকালে পূর্বাচল এ্যাপারেলস লিঃ এর ফ্যাক্টরীরপাশের পুকুরে ও জঙ্গলে মানুষের দেহের খন্ডিত অংশ দেখতে পেয়ে তারা উলুখোলা পুলিশ ক্যাম্পে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রথমে কোমড় থেকে হাটুপর্যন্ত্ম অংশ, আঙ্গুলবিহীন কাটা দুই হাত ও একটি জিন্সের প্যান্ট উদ্ধার করে।

পরে কোমড় হতে গলা পর্যন্ত ও এক পায়ের কাটা দুই অংশ এবং বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মাথা উদ্ধার করে। সুবজকে হত্যার পর খুনিরা লাশ টুকরো টুকরো করে কেটে প্রায় এক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখে।

সবুজের পিতা অমূল্য ঘোষাল জানান, শনিবার সকালে স্থানীয়দের কাছেফ্যাক্টরীর পাশের পুকুরে ও জঙ্গলে মানুষের শরীরের খন্ডিত অংশ পড়ে থাকার খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে উদ্ধারকৃত জিন্সের প্যান্ট, কাটা দুই লোমশ হাত ও কোমড়ের নীচের অংশ দেখে তা আমার নিখোঁজ পুত্র সবুজের বলে সনাক্ত করি। দুই হাতের আঙ্গুলগুলোও কাটা ছিল।

পরে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটারএলাকা জুড়ে তলস্নাশী চালিয়ে জঙ্গল, পুকুর ও ডোবা থেকে কোমড় হতে গলা পর্যন্ত এক পায়ের দুই টুকরো ও মাথা উদ্ধার করে পুলিশ। এখনো পর্যন্ত্ম অপরপায়ের অংশ পাওয়া যায়নি। মাথা দেখে লাশটি আমার পুত্র সবুজের বলেসম্পূর্ণ নিশ্চিত হই।

সবুজ গত বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকালে বাড়ী থেকে তার কর্মস্থল পূর্বাচল এ্যাপারেলস্‌ লিঃ এর ফ্যাক্টরীতে যায়। রাতে বাড়ী না ফেরায় পরদিন তার কর্মস্থলে গিয়ে জানতে পারেন সবুজ বুধবার ভোর ০৬ টায়ফ্যাক্টরীতে প্রবেশ করে এবং বিকেল ৪.০৬ মিনিটে সেখান থেকে বের হয়ে যায়। পরে তারা বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) কালীগঞ্জ থানায় নিখোঁজের বিষয়েএকটি সাধারণ ডাইরী করেন, যার নং ১৩৭৪।

আগামী মাসে সবুজের স্ত্রী প্রথম সন্তান প্রসব করবে। এ বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আইমধুসূধন পান্ডে ও অফিসার ইনচার্জ মোঃ আনিসুর রহমানের মোবাইলে বারবার কল দিলেও ফোন রিসিভ না করায় তাঁদের কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পরে কালীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার এস.আই শামীম জানান, ৯৯৯ থেকে খবরপেয়ে উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই মধুসূধন পান্ডে ঘটনাস্থলথেকে লাশের খন্ডিত অংশ উদ্ধার করেন। পরে র‍্যাব ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। লাশের অবশিষ্টাংশ উদ্ধারে তল্লাশি কাজ চলমান আছে।

আরো খবর..
© নরসিংদীর কন্ঠস্বর
Developed By Bongshai IT